রাত হলেই মহিলা হোস্টেলের ভিতর কি হয় দেখলে অবাক হয়ে যাবেন…

ঢাকা শহরে উচ্চ শিক্ষার জন্য আসা বেশীর ভাগ মেয়ে গ্রামে মা-বাবার কঠোর শাসনে বড় হয়েছে। ইন্টারমেডিয়েট পাস করার পর উড়ো উড়ো মনের সাথে ফ্যামিলি শাসন থেকে মুক্তি পেয়ে ঢাকায় এসে অবাধ স্বাধীনতা পাওয়ার আনন্দ। এতেই পড়ালেখা থেকে দূরে সরে মোবাইল, ইন্টারনেটে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে পড়ছে হোস্টেলের মেয়েরা । একটা সময় আসক্তি এমনই পর্যায়ে পৌঁছাচ্ছে যে, সাধারণ রিয়েল লাইফ থেকে অনেক দূরে সরে যাচ্ছে।

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন।

ভিডিওটি পোষ্টের নিচে দেয়া আছে। ভিডিওটি দেখতে স্ক্রল করে পোষ্টের নিচে চলে যান।

বিভিন্ন হোস্টেল, মেসে থাকা ১১৫ জন ছাত্রীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ঢাকা শহরের বিভিন্ন ছাত্রী হোস্টেল, মেসের বাতি বন্ধ হয় রাত ২টার পর। ৫৫ জন ছাত্রী রাত ৩টার মধ্যে, ৩৭ জন ভোরে এবং ২৩ জন রাত ২টার মধ্যে ঘুমানোর কথা জানিয়েছেন।

রাত জেগে কি করে? এমন প্রশ্নের জবাবে ৩টার মধ্যে ঘুমানো ৫৫ জন জানিয়েছেন, ক্লাস থাকলে ঘণ্টা খানেক বই নিয়ে বসা হয়। বাকি সময় স্ট্যাটাস, কমেন্ট, লাইক, চ্যাট, গ্রুফ চ্যাট কিংবা মোবাইলে কথা বলার কথা জানিয়েছেন। ভোরে ঘুমানো ৩৭ জন জানিয়েছেন ফেসবুক, হোয়াটসআ্যপ কিংবা মোবাইল ফোনে বয়ফ্রেন্ডের সাথে কথা বলা যখন যেটা ভাল লাগে তা করা। রাত ২টার মধ্যে ঘুমানো ২৩ জন জানিয়েছেন, পড়ালেখা নিয়ে ব্যস্ত থাকার কথা। পড়ার চাপ না থাকলে মাঝে মাঝে ফেসবুক কিংবা মোবাইলে ঘণ্টা খানেক সময় দেয়।

সর্বনাশা ফেসবুক সর্বনাশ মোবাইল কলরেটে
২০১৪ সালে আমেরিকান এডুকেশনাল রিসার্চ আ্যসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায় ওহিয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক যে প্রতিবেদন সাবমিট করেছিল তাতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের খারাপ রেজাল্টের চিত্র ফুটে উঠেছিল। এরকমের খারাপ রেজাল্টের পেছনে ছিল ফেসবুকসহ জনপ্রিয় স্যোশাল সাইটগুলোতে আসক্ত হয়ে পড়া।

সম্প্রতি জাপান সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক জরিপে স্টুডেন্টদের খারাপ রেজাল্টের পেছনে মোবাইল ডিভাইস নিয়ে সময় ক্ষেপণকেই দায়ী করা হয়েছে। বাংলাদেশের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়াদের বেশীর ভাগই এখন ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসআ্যপ ব্যবহার করছে।
যদি একটু সময় থাকে পড়বেন, ক্যান্সার আক্রান্ত ‘মেয়েটি’ তার প্রেমিককে বলেছিলো…

যদি একটু সময় – ক্যান্সার আক্রান্ত ‘মেয়েটি’ তার প্রেমিককে বলেছিলো”—– “আমিতো ‘মরে’ যাবো”। “কিন্তু, তোমাকে “ভালবাসবে কে,,??

“কে দেখে রাখবে,,? “কে তোমায় “শাসন করবে,,??।। “ঝগড়া করবে কার সাথে,,??।। “তোমার তো রাত জাগার স্বভাব”। “না খেয়ে থাকার বদ অভ্যাস”। “কে তোমাকে বকা দিয়ে খাওয়াবে,,??।। “কে ‘গান শুনিয়ে ঘুম’ পাড়াবে,??।।

“তুমি বরং একটা ‘বিয়ে’ করে নাও”। “আমার মৃত্যুর আগেই প্লিজ”। “আমি অন্তত দেখে যেতে চাই”—- “তুমি ভালো থাকবে”, “আমি না থাকলেও”।

“ছেলেটি ফুপিয়ে ফুপিয়ে কেঁদে, “মেয়েটিকে বুকে ‘জড়িয়ে’ ধরে বলেছিলো”—– “চুপ একদম চুপ”। “তোমার কিচ্ছু হবেনা”। “তুমি ছাড়া আমি আর কারও হতে পারিনা”। ” হবোনা কোনদিন”। “আমি তোমাকেই “ভালবাসি”।

” তুমিই আমার “পাগলী”। “তুমি ‘মরবে না”। “মরতে পারোনা”। “স্রষ্টা এমন করতে পারেনা”। “মেয়েটির চোখ বেয়ে “অশ্রু গড়িয়ে পড়ছে”। “বুকের কষ্ট গুলো ছাঁইচাপা আগুনের মত ফুঁসে উঠেছে”।

“এমন “ভালবাসার মানুষকে ছেড়ে যেতে হবে,,??।। ‘“মেয়েটি বললো জানো”—- “আমার অন্ধকারে খুব ‘ভয় লাগে”। “অথচ দেখো কদিন পর চিরস্থায়ী অন্ধকারে থাকতে হবে”।

“বলোনা কি করে থাকবো,,??।। “খুব ইচ্ছে করছে তোমার বুকে মাথা রেখে, “সারাজীবন আলোয় থাকতে”। “ছেলেটির চোখে মুখে ‘অশ্রুজলে’ মাখামাখি”।“দুইজন দুজনকে বুকের মাঝে ‘জড়িয়ে কেদে যাচ্ছে নিরবে”।

“এই ঘটনার কিছুদিন পর”—– “মেয়েটির মৃতু্য হয়”। “ছেলেটি প্রতি রাতে, “মেয়েটির কবরের পাশে বসে থাকে”। “একের পর এক ‘মোমবাতি জ্বালিয়ে,“মেয়েটির কবর আলোকিত করে”।

“রাতে ঘুমায়না এইভেবে যে”—— “মেয়েটি অন্ধকার সহ্য করতে পারেনা”। ‘ “ইদানীং ছেলেটিরও ‘ক্যান্সার’ ধরা পরেছে”। ‘খুব টেনশনে আছে ছেলেটি”। ” মৃত্যুর চিন্তা না”।

“ছেলেটি ভাবছে সে চলে গেলে, “কবরে ‘মোমের আলোজ্বালাবে কে,,??।। “মেয়েটি যে অন্ধকারে খুব ভয় পায়”। “ভালো থাকুক ‘পবিত্র ভালবাসা’ ওপারেও”। “হৃদয়ের বন্ধনে আন্তরিকতার টানে”

আপনাকে ধন্যবাদ গল্পটি পড়ার জন্য।

About newsroom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মৃত্যুর ১৩ ঘণ্টা আগে ফেসবুকে যে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন অভিনেত্রী তাজিন

মৃত্যুর ১৩ ঘণ্টা আগে- হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় ...

যে কারণে বাঁধন সরে গেলেন, ঢুকলেন পূর্ণিমা?

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার আলোচিত ছবি ‘দহন’। গত ৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে জমকালো ...

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow