দেখুন এই দুটি মিলন পজিশনে মিলন করলে মেয়েদের সহজে বের হয়ে যায়।

মিলনের ২০ মিনিট আগে যে দুটি খাবার খেলে থাকতে পারবেন কমপক্ষে ৪৫ মিনিট, কি সেই জিনিস জানুন:

সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি food খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই। শরীরের বিভিন্ন পুষ্টি পূরণে আমরা প্রতিদিনই অনেক ধরনের food খেয়ে থাকি কিন্তু সবাই জানি কি কোন ধরনের food আমাদের সেক্স বাড়াতে সক্ষম?

সাধারণত খাবারে ভিটামিন এবং মিনারেলের ভারসাম্য ঠিক থাকলে শরীরে এন্ড্রোক্রাইন সিস্টেম সক্রিয় থাকে। আর তা আপনার শরীরে এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরনের তৈরি হওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরন সেক্সের ইচ্ছা এবং পারফরমেন্সের জন্য জরুরি। আপনি যৌন মিলনের মুডে আছেন কিনা তা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করে আপনার খাদ্য। আসুন জেনে নিই এমন কয়েকটি দৈনন্দিন খাদ্য সম্পর্কে যা আপনার শরীরে সেক্স

পাওয়ার বাড়ায় বহুগুণ।

জেনে নিন: দুধ : বেশি পরিমাণ প্রাণিজ-ফ্যাট আছে এ ধরনের প্রাকৃতিক খাদ্য আপনার যৌনজীবনের উন্নতি ঘটায়। যেমন, খাঁটি দুধ, দুধের সর, মাখন ইত্যাদি। বেশিরভাগ মানুষই ফ্যাট জাতীয় food এড়িয়ে চলতে চায়।কিন্তু আপনি যদি শরীরে সেক্স হরমোন তৈরি হওয়ার পরিমাণ বাড়াতে চান তাহলে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট জাতীয় খাবারের দরকার। তবে সগুলিকে হতে হবে প্রাকৃতিক এবং স্যাচুরেটেড ফ্যাট।

ঝিনুক : আপনার যৌনজীবন আনন্দময় করে তুলতে ঝিনুক খাদ্য হিসেবে খুবই কার্যকরী। ঝিনুকে খুব বেশি পরিমাণে জিঙ্ক থাকে। জিঙ্ক শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে এবং লিবিডো বা যৌন-ইচ্ছা বাড়ায়। ঝিনুক কাঁচা বা রান্না করে যে অবস্থাতেই খাওয়া হোক, ঝিনুক যৌনজীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি food খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই।সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি food খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই।সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি food খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই। শরীরের বিভিন্ন পুষ্টি পূরণে আমরা প্রতিদিনই অনেক ধরনের food খেয়ে থাকি কিন্তু সবাই জানি কি কোন ধরনের food আমাদের সেক্স বাড়াতে সক্ষম? সাধারণত খাবারে ভিটামিন এবং মিনারেলের ভারসাম্য ঠিক থাকলে শরীরে এন্ড্রোক্রাইন সিস্টেম সক্রিয় থাকে।

আর তা আপনার শরীরে এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরনের তৈরি হওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরন সেক্সের ইচ্ছা এবং পারফরমেন্সের জন্য জরুরি। আপনি যৌন মিলনের মুডে আছেন কিনা তা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করে আপনার খাদ্য। আসুন জেনে নিই এমন কয়েকটি দৈনন্দিন খাদ্য সম্পর্কে যা আপনার শরীরে সেক্স পাওয়ার বাড়ায় বহুগুণ।
বড় হয়ে যাওয়া যোনি টাইট করুন সহজ ঘরোয়া উপায়ে! লজ্জা নয় জানতে হবে
যোনি (ইংরেজি: Vagina – ভ্যাজাইনা; মূলতঃ লাতিন: উয়াগিনা) হলো স্ত্রী (wife)যৌনাঙ্গ, যা জরায়ু থেকে স্ত্রীদেহের বাইরের অংশ পর্যন্ত বিস্তৃত একটি ফাইব্রোমাসকুলার নলাকার অংশ। মানুষ ছাড়াও অমরাবিশিষ্ট মেরুদণ্ডী ও মারসুপিয়াল প্রাণীতে, যেমনঃ ক্যাঙ্গারু অথবা স্ত্রী (wife)পাখি, মনোট্রিম ও কিছু সরীসৃপের ক্লোকাতে ভ্যাজাইনা পরিদৃষ্ট হয়। স্ত্রী কীটপ্রত্যঙ্গ এবং অন্যান্য অমেরুদণ্ডী প্রাণীরও ভ্যাজাইনাআছে, যা মূলতঃ ওভিডাক্টের শেষ প্রান্ত। লাতিন বহুবচনে যোনিকে বলা হয় vaginae – উয়াগিনাই (ইংরেজি উচ্চারণে ভ্যাজাইনি)।

বড় হয়ে যাওয়া ভ্যাজাইনা টাইট করুন সহজ ঘরোয়া উপায়ে! লজ্জা নয় জানতে হবে!
অনেকেই এই পোস্টটিকে হয়ত খারাপ দৃষ্টিতে দেখবেন কিন্তু তা করা ঠিক হবে না কারণ এটি শিক্ষামূলক পোস্ট এবং আপনাদের অনেকের উপকারের কথা চিন্তা করেই আজকে এই পোস্টটি আপনাদের মাঝে শেয়ার করা হল।

সহবাসের সময় যদি নারী পুরুষ উভয়ই আনন্দ না পান তাহলে সহবাস করার সকল মজাই বিফলে চলে যেতে পারে। নারীর কাছে যেমন পুরুষের শক্ত লম্বা এবং মোটা যৌনাঙ্গ সমাদৃত তেমনি পুরুষও চায় মাঝারি স্তনের টাইট ভ্যাজাইনার মেয়ের সাথে সহবাস করতে। কিন্তু বাচ্চা জন্মের পর অনেক মেয়েরই ভ্যাজাইনা পথ বড় হয়ে যেতে পারে যা অনেক সময় সম্পর্ক বিচ্ছেদের কারন হয়ে দাড়ায়। কারন মেয়েরা যখন গর্ভবতী হয় সেসময় প্রায় অনেক দিন পুরুষ সহবাস করতে পারে না। যে কারনে সে অপেক্ষা করতে থাকে বাচ্চা হওয়া পর্যন্ত আর তারপর যদি স্ত্রীর (wife)যোনিপথ বড় বা ঢিলা হয়ে যায় তাহলে সে পুরুষ মজা পায় না। আমাদের দেশে অনেক মেয়েই এই সমস্যায় ভুগছেন কিন্তু লোক লজ্জার কারনে মুখ ফুটে বলতে পারছেন না আবার এই সমস্যায় পড়ে স্বামী সংসার হারানোর উপক্রম হয়েছেন।

কিভাবে ঘরে বসেই টাইট করবেন নিজের ভ্যাজাইনা পথঃ

আমলকীর সিরাপঃ আমাদের দেশের খুবই পরিচিত একটি ফল আমলকী। দামে কম সহজলভ্য এই ফলটি ভ্যাজাইনা পথ টাইট করার জন্য বাইরের দেশগুলোতে মেয়েদের ভ্যাজাইনা পথে ব্যাপক পরিমানে ব্যবহার করা হয়। আমলকী ফল কিনে এনে অথবা সংগ্রহ করে পানিতে সিদ্ধ করুন। যখন আমলকী পানিতে গলে পানিটি পুরু হয়ে আসবে তখন মিশ্রণটি বোতলে সংগ্রহ করুন। এরপর যখনই মেয়েরা গোসল করতে যাবেন সিরাপটি যোনিপথের ভেতরে এবং বাইরে ম্যাসেজ করুন। প্রায় এক মাস এই নিয়ম অনুসরন করলে যোনিপথ টাইট হয়ে আসবে।

কেগেল ব্যায়ামঃ এই ব্যায়াম অনুসরন করে অনেক মেয়েই জীবনে সুখ ফিরে পেয়েছে। বলা হয়ে থাকে যে বাচ্চা হওয়ার পর নিয়মিত এই ব্যায়াম করলে ভ্যাজাইনা পথ ঠিক কুমারী মেয়ের মত টাইট হয়ে যায়। এই ব্যায়ামটিতে কুঁচকির মাংসপেশি বারবার সংকোচিত এবং প্রসারিত করা হয়। কুঁচকি ১০ সেকেন্ডের জন্য সংকোচিত করে ছেড়ে দিতে হয় আবার ১০ সেকেন্ডের জন্য সংকোচিত করতে হয় এভাবে প্রায় ১৫ বার পদ্ধতিটি রিপিট করুন। দিনে বিরতি দিয়ে দিয়ে ১০০-২০০ বার কেগেল ব্যায়াম করতে পারেন। প্রসাব করার সময়ও এই ব্যায়ামটি করতে পারেন। প্রসাব করার সময় পেশি সংকোচিত করে ৫ সেকেন্ডের জন্য প্রসাব আটকে রাখুন তারপর ছেড়ে দিন।

ভ্যাজাইনা টাইট (vagina tight) করতে সুস্থ খাদ্যাভ্যাসঃ কেগেল ব্যায়ামের সাথে সাথে খাবারে বেশি পরিমানে ফল এবং শাকসবজি (vegetable) থাকাটাও খুবই জরুরী। এর ফলে ঢিলে হয়ে যাওয়া ভ্যাজাইনা পথ খুব তারাতারি পুরনো রুপ ফিরে পায় আর সেক্স হয় পরিপূর্ণ।*

বিঃদ্রঃ অনেকে আছেন যেনির ভিতরে আঙ্গুল ডুকিয়ে পরিষ্কার করেন যার কারণে ভ্যাজাইনা অনেকটা প্রশস্ত হয়ে যায়। তাই এমনভাবে কোন কিছু করবেন না , যাতে করে ভ্যাজাইনার স্বাভাবিক অবস্থা বজায় থাকে না।

স্ত্রী সহবাস কিভাবে করবেন জেনে নিন

মানুষের সকল কর্মকাণ্ডের মধ্যে সবচেয়ে মধুর কর্মটি হচ্ছে স্বামী স্ত্রীর (wife)ভালবাসা। আর স্বামী-স্ত্রীর (wife)ভালবাসার তীব্রতম প্রকাশ হচ্ছে স্বামী স্ত্রী সহবাস । শারীরিক সহবাসের মাধ্যমে স্বামী-স্ত্রী পরস্পরের যতো সান্নিধ্য লাভ করতে পারে, তা অন্য কোনভাবে সম্ভব নয়।(সহবাসের শুরুতে কিছু প্রেমক্রীড়া দ্বারা পরস্পরের মধ্যে আবেগ জাগ্রত করে নিবে। তা এই আলোচনায় উহ্য রাখা হল)

স্বামী স্ত্রী (wife)সহবাসের স্বাভাবিক পন্থা হলো এই যে, স্বামী উপরে থাকবে আর স্ত্রী (wife)নিচে থাকবে। প্রত্যেক প্রাণীর ক্ষেত্রেও এই স্বাভাবিক পন্থা পরিলক্ষতি হয়। সর্বপরি এ দিকেই অত্যন্ত সুক্ষভাবে ইঙ্গিত করা হয়েছে আল কুরআনে।

দেখতে পারেন নেক সন্তান লাভের উপায় ও স্ত্রী (wife)মিলনের ১২টি গুরুত্বপূর্ণ আদব-সুন্নাত!
আয়াতের অর্থ হলোঃ “যখন স্বামী -স্ত্রীকে (wife)ঢেকে ফেললো তখন স্ত্রীর(wife) ক্ষীণ গর্ভ সঞ্চার হয়ে গেলো।”
আর স্ত্রী যখন নিচে থাকবে এবং স্বামী তার উপর উপুড় হয়ে থাকবে তখনই স্বামীর শরীর দ্বারা স্ত্রীর শরীর ঢাকা পড়বে। তাছাড়া এ পন্থাই সর্বাধিক আরামদায়ক। এতে স্ত্রীরও কষ্ট সহ্য করতে হয়না এবং গর্ভধারণের জন্যেও তা উপকারী ও সহায়ক। বিখ্যাত চিকিতসা বিজ্ঞানী বু-আলী ইবনে সীনা তার অমর গ্রন্থ “কানুন” নামক বইয়ে এই পন্থাকেই সর্বোত্তম পন্থা হিসেবে উলে­খ করেছেন এবং স্বামী স্ত্রী সহবাসে ‘স্বামী নিচে আর স্ত্রী উপরে’ থাকার পন্থাকে নিকৃষ্ট পন্থা বলেছেন। কেননা এতে পুংলিংগে বীর্য আটকে থেকে দুর্গন্ধ যুক্ত হয়ে কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই অবশ্যই আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে যেন আনন্দঘন মুহুর্তটা পরবর্তিতে বেদনার কারণ হয়ে না দাড়ায়। দেখতে পারেন পেনিস সহজে বড়, মজবুত ও মোটা করার উপায় কি?

স্বামী স্ত্রী (wife)সহবাস করার সময় কিছু নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয়। যেগুলো আমাদের ইসলামী সমাজে প্রচলিত। আমরা অনেকই সেগুলি জানি আবার অনেকেই জানিনা। তাই নিচে কিছু নিয়মনীতি আলোচনা করা হল-

দেখতে পারেন কোন সময় স্ত্রী (wife)সহবাস করা একদম উচিত নয়, করলে ক্ষতি কী?

রাত্রি দ্বি-প্রহরের আগে সহবাস করবে না।

ফলবান গাছের নিচে স্ত্রী (wife)সহবাস করবে না।

সহবাসের প্রথমে দোয়া পড়বেন।

তারপর স্ত্রীকে আলিঙ্গন করবেন।

স্ত্রী যদি ইচ্ছা হয় তখন তাকে ভালোবাসা দিবে এবং আদর সোহাগ দিবে। চুম্বন দিবে। তখন উভয়ের মনের পূর্ণ আশা হবে সহবাস।

*তখন বিসমিল্লাহ বলে শুরু করবেন।

স্ত্রী সহবাস করার সময় নিজের স্ত্রীর(wife) রূপ দর্শন শরীর স্পর্শন ও সহবাসের সুফলের প্রতি মনো নিবেশ করা ছাড়া

*অন্য কোনো সুন্দরি স্ত্রী লোকের বা অন্য সুন্দরী বালিকার রুপের কল্পনা করিবে না।

*তাহার সাহিত মিলন সুখের চিন্তা করবেন না। স্ত্রীর (wife)ও তাই করা উচিৎ।
রবিবারে সহবাস করবেন না।

স্ত্রীর হায়েজ-নেফাসের সময় উভয়ের অসুখের সময় সহবাস করবেন না।

বুধবারের রাত্রে স্ত্রীর (wife)সহবাস করবেন না।

চন্দ্র মাসের প্রথম এবং পনের তারিখ রাতে স্ত্রী (wife)সহবাস করবেন না।

স্ত্রীর জরায়ু দিকে চেয়ে সহবাস করবেন না। ইহাতে চোখের জ্যোতি নষ্ট হয়ে যায়।

বিদেশ যাওয়ার আগের রাতে স্ত্রী(wife) সহবাস করবেন না।

সহবাসের সময় স্ত্রীর(wife) সহিত বেশি কথা বলবেন না।

নাপাক শরীরে স্ত্রী (wife)সহবাস কবেন না।

উলঙ্গ হয়ে কাপড় ছাড়া অবস্থায় স্ত্রী(wife) সহবাস করবেন না।

জোহরের নামাজের পরে স্ত্রী সহবাস করবেন না।

ভরা পেটে স্ত্রী স(wife)হবাস করবেন না।

উল্টাভাবে স্ত্রী (wife)সহবাস করবেন না।

স্বপ্নদোষের পর গোসল না করে স্ত্রী(wife) সহবাস করবেন না।

পূর্ব-পশ্চিম দিকে শুয়ে স্ত্রী (wife)সহবাস করবেন না।

About newsroom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কিভাবে মেয়েদের দুধ চুষলে মেয়েরা বেশি আনন্দ পায়? দেখুন ভিডিওটি।

অনেক ছেলেই জানেন না সঠিক নিয়মে মেয়েদের দুধ কিভাবে চোষা এবং টেপা যায়। অথচ শুধুমাত্র ...

নারীদের মিলন ইচ্ছা কত বছর পর্যন্ত স্থায়ী হয়? জেনে নিন কিছু অবাক করা তথ্য!

নারীদের মিলন ইচ্ছা কত বছর- নারী পুরুষের যৌন উত্তেজনার ধারা পৃথিবীব্যাপী একই রকম। অর্থাৎ পৃথিবীর ...

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow